সুনামগঞ্জে সংখ্যালঘু অধ্যুষিত নোয়াগাঁও গ্রামে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে হা’মলা ও লু’টপাটে ক্ষ’তিগ্রস্ত পারিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে বিএনপি। দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরীর নেতৃত্বে শনিবার বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল ক্ষ’তিগ্রস্তদের বাড়িঘর পরিদর্শন করেন।

প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন নারী ও শি’শু অধিকার ফোরামের সদস্য স’চিব অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী। তাদের সঙ্গে যুক্ত হন সুনামগঞ্জ জে’লা বিএনপির সভাপতি কলিম উদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলামসহ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নেতাকর্মী।

দুপুরে সেখানে পৌঁছে ক্ষ’তিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলার পর প্রতিনিধি দলের নেতা নিতাই রায় উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, নোয়াগাঁও গ্রামে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে যে হা’মলা ও লু’টপাট হয়েছে তার সঙ্গেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের স’ন্ত্রাসীরা জ’ড়িত। নাসিরনগর,

রামুসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘু সম্প্রদা’য়ের বাড়িঘর-মন্দিরসহ উপসানালয়ে হা’মলা হয়েছিল-এসব প্রতিটি ঘটনার সঙ্গেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জ’ড়িত ছিল।

অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী বলেন, এখানে শুধু বাড়িঘরে হা’মলাই নয়; নারী ও শি’শুদের ও’পরও নি’র্যাতন হয়েছে। নি’র্যাতিত মানুষদের বুকফাটা কা’ন্না আমরা শুনতে পেয়েছি।

হা’মলার সময় বাথরুমে পা’লিয়ে থাকা নারী ও শি’শুদের বের করে নি’র্যাতন করা হয়েছে। এখানকার প্রশাসন ঘটনা ঘটার আগে জানার পরও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আপনারা দেখবেন প্রশাসন আছে শুধুমাত্র বি’রোধী মত ও বিএনপিকে দমান করার কাজে।

নোয়াগাঁও গ্রামের সংখ্যা লঘু সম্প্রদা’য়ের বাড়িঘরে হা’মলা, লু’টপাট, নারী ও শি’শু নি’র্যাতনের এ ঘটনার সঙ্গে জ’ড়িতদের গ্রে’প্তার ও তাদের দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি দেওয়া না হলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

আমরা এই নি’র্যাতিত পারিবারের পাশে আছি এবং থাকব। তিনি আরও বলেন, দেশে নারী ও শি’শু নি’র্যাতনের ঘটনার প্র’তিবাদ করতেই দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন।

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে আমরা নি’র্যাতিত মানুষের পাশে আছি এবং থাকব। আমরা মনে করি,

যারা সংখ্যালঘুদের ও’পর নি’র্মম হা’মলা চালাচ্ছে, তারা মানবজাতির শ’ত্রু। পরে ক্ষ’তিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। সুত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here